শ্যামনগরের মেয়েরা গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় সাতক্ষীরা জেলা চ্যাম্পিয়ন

প্রকাশিত: ৯:৫৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯

আব্দুল আলিম, স্টাফ রিপোর্টার, সাতক্ষীরার পিএন স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে শনি ও রবিবার অনুষ্ঠিত হয়েগেল জেলা পর্যায়ের ৪৮তম জাতীয় আন্তঃস্কুল ও মাদ্রাসা গ্রীষ্মকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতার অন্যতম আকর্ষণ ছিল মেয়েদের ফুটবল ও হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতা। শনিবার অনুষ্ঠিত হয় মেয়েদের হ্যান্ডবল খেলা। উক্ত খেলায় শ্যামনগরের আটুলিয়া ইউনিয়নের ছফিরুন্নেসা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের মেয়েরা সেমিফাইনালে সদর উপজেলার স্কুলকে ৪-৩ গোলে পরাজিত করে ফাইনালে উত্তীর্ণ হয় এবং ফাইনালে কলারোয়া উপজেলার স্কুলকে ৬-৩ গোলে পরাজিত করে সাতক্ষীরা জেলা চ্যাম্পিয়ন হয়। রবিবার একই মাঠে অনুষ্ঠিত হয় মেয়েদের ফুটবল প্রতিযোগিতা। উক্ত প্রতিযোগিতায় প্রথম রাউন্ডে শ্যামনগরের ছফিরুন্নেসা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কালীগঞ্জ উপজেলার একটি স্কুলকে পরাজিত করে সেমিফাইনালে উত্তীর্ণ হয়। সেমিফাইনালে ট্রাইব্রেকারে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার স্কুলকে ৪-৩ গোলে পরাজিত করে ফাইনালে উত্তীর্ণ হয়। ফাইনালে দেবহাটা উপজেলা চ্যাম্পিয়ন স্কুলকে ট্রাইব্রেকারে ৪-৩ গোলে পরাজিত করে জেলা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব লাভ করে। প্রত্যন্ত এলাকার একটি মেয়ে স্কুল কিভাবে এত ভালো খেলছে? জানতে চেয়েছিলাম ছফিরুন্নেসা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ হযরত আলীর কাছে। তিনি এই প্রতিবেদককে বলেন, বেসরকারি সংস্থা ভাব-বাংলাদেশ থেকে আমাদের মেয়েদেরকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয় এবং আমাদের মেয়েরা খেলা ধূলা প্রিয়। নিয়মিত অনুশীলন শিক্ষকদের আন্তরিকতা এবং এসএমসি’র সদস্যদের নিবিড় পর্যবেক্ষণের ফলে আজ আমরা দুইটি খেলাতেই জেলা চ্যাম্পিয়ন হতে পেরেছি। তবে আর্থিক সীমাবদ্ধতার কারণে আমাদের বিভাগীয় প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহণ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। আর্থিক সহযোগিতা পেলে আমরা বিভাগীয় পর্যায়ে অংশ গ্রহণ করলে সেখানেও ইনশাআল্লাহ ভালো খেলবে আমাদের মেয়েরা।” বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জিএম নাসির উদ্দীন বলেন, সেই নওয়াবেঁকী থেকে সাতক্ষীরা মেয়েদের নিয়ে যাওয়া ও আসা এবং তাদের উৎসাহ উদ্দীপনা দেয়া সব কিছু মিলে কষ্ট হলেও আমরা অত্যন্ত আনন্দিত যে আমাদের ৯ম শ্রেণির ছাত্রী জান্নাতুনের নেতৃত্বে দুইটি খেলায় অংশ গ্রহণ করে দুইটিতে জেলা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। যেহেতু আমাদের বিদ্যালয়ে কোন বেতন নেয়া হয় না; তাই আর্থিক সীমাবদ্ধতা জন্য ইচ্ছা থাকলেও পরবর্তী পর্যায়ে অংশ নিতে পারবো কি না বলতে পারছি না।”

স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ভাব-বাংলাদেশের প্রকল্পভুক্ত ছফিরুন্নেসা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় দুইটি খেলায় জেলায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন সংস্থাটির কান্ট্রি ডিরেক্টর ও বুয়েটের প্রাক্তন অধ্যাপক ড. জসিমউজ জামান, প্রোগ্রাম ডিরেক্টর খন্দকার আশরাফুল ইসলাম ও সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার এম. এ. আলিম খান।

উল্লেখ্য আন্তর্জাতিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ভলান্টিয়ার্স এসোসিয়েশন ফর বাংলাদেশ ২০১৮ সাল থেকে শ্যামনগর ফুটবল একাডেমির প্রধান কোচ মোঃ আক্তার হোসেনের নেতৃত্বে একদল দক্ষ প্রশিক্ষক দিয়ে ছফিরুন্নেসা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে ফুটবল প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন। এছাড়া নওয়াবেঁকী ক্রিকেট একাডেমির প্রধান কোচ মোঃ আবীর হোসেনও সার্বিক সহযোগিতা করছেন।